Text size A A A
Color C C C C
পাতা

প্রকল্প

 

আউশ ধানের উৎপাদন বৃদ্ধির পরিকল্পনা

 

 

Ø      স্থানীয় জাতের পরিবর্তে উফশী জাতের আবাদ বৃদ্ধি করা।

          স্থনীয় জাত- কেরন ডোল, কালিশাটিয়া।

          উফশী জাত- বি আর-১৪,ব্রী ধান-২৭,২১,২৪,২৬,৪২,৪৩,৪৮। ইরাটিম-২৪, হাইব্রিড ACI-1   

উদ্ভু্দ্ধ করেনের মাধ্যমে ১০% জমিতে উফশী ও হাইব্রিড ধানের চাষাবাদ উন্নীত করা।

Ø        রোপা আউশ আবাদ সম্প্রসারন করা প্রতি বস্নকের ১০ হেঃ ।

Ø        সারি বদ্ধ ভাবে আউশ ধানের চারা রোপন প্রতি বস্নকে ১ হেঃ করে।

Ø        প্রদর্শনী পস্নটে গুটি ইউরিয়া প্রয়োগ করা।

Ø        সুষম সার ব্যাবহার প্রতি বস্নকে ৫ হেঃ করে।

Ø        প্রতি বস্নকে ১টি করে L.c.c পস্নট স্থাপন

Ø        আউশ ধান ক্ষেতের ১০ হেঃজমিতে পাচিং নিশ্চিত করা।

Ø        অতন্দ্র বালাই জরিপের মাধ্যেমে বাইল পূবাবাস তৈরি ও কার্যকরি ব্যাবস্থা স্নহন করা।

Ø        ঔষমানি পদ্ধতিতে বালাই নাশক ব্যাবহার করা।   

Ø        বিলম্ব করে ৮০%পরিপক্ত হলে  কেটে উহাসংরক্ষন করা।

Ø        যে সমসত্ম জমিতে আউশ ধান হবেনা সে সমসত্ম জমিতে ধৈঞ্জ চাষ করে সবুজ সার তৈরি করে আমন  

          ধান আবাদ করা প্রতি বস্নকে ১ টি করে।

Ø        সৌর তাপের/প্রচলিত পদ্ধতিতে ধান শুকানো।

 

 

 

আমন ধানের উৎপাদন বৃদ্ধির কলাকৌশল

 

 

Ø        আমনের উফশী জাত দ্বারা স্থানীয় প্রতিস্থাপন টার্গেট ১০%

Ø        সারিতে রোপন এবং সুপারিশ করে রোপন দুরত্ব সঠিক রাখা ১০%

Ø        আমন রোপন মৌসুম এগিয়ে নিয়ে আসা।

Ø        কাটিং করা ১০%

Ø        উফশী জাতে ৪টি ইউরিয়া ব্যবহার। প্রতি বস্নকে ১০ হেক্টর।

Ø        ব্রিধান-৩৪ ও ব্রিধান-৫০ জাতের সুগন্ধি ধানের জাত সম্প্রসারণ করা।

Ø        LCC ব্যবহার বস্নক প্রতি ১০ হেক্টর।

Ø        পেষ্ট সার্ভিলেন্সব্যবহার করা ।

Ø        সুষম সার ব্যবহার ১০% (N.P.KS)

Ø        খরিপ-২ মৌসুমে রাসত্মার পার্শ্বে পতিত জমিতে তিল আবাদ করা।

 

রবি মৌসুমে

 

দানা ফসল

 

Ø        ভুট্টা আবাদ বৃদ্ধি করা ।

Ø        গমের আবাদ প্রবর্তন ও সম্প্রসারণ বস্নক প্রতি ১ হেক্টর।

Ø        রিলে ফসল হিসাবে ধানক্ষেতে বিনা চাষে গম চষ।

 

ডাল ফসল

 

Ø        খেশারী, ফেলন, মুগ এর আধুনিক জাত প্রবর্তন।

Ø         মসকলাই আবাদ প্রবর্তন।

Ø        ডাল ফসলে ফল ছিদ্রকারী পোকা দমনের জন্য সথী ফসল হিসাবে ধনিয় ও তিসি চাষ করতে হবে।

Ø        ডাল ফসলে সুষম সার ব্যবজার করতে হবে।

 

তৈল ফসল

 

Ø        রবি মৌসুমে বাউন্ডারি ফসল হিসাবে তিল চাষ করা।

Ø        তৈল ফসল হিসাবে তিল,সরিষা,সূর্য্যমুখি ইত্যাদি তৈল জাতীয় ফসলের আবদ প্রসার ঘটাতে পারে।

Ø        সয়াবিন চাষ সম্বন্ধে চাষীদেরকে উদ্ভদ্ধ করে চাষাবাদ বাড়াতে হবে।

Ø        তিশির আবাদে চাষীদেরকে উৎসাহিত করতে হবে।

Ø         

মসলা ফসল

 

Ø        রবি মৈসুমে রসুন ও পিয়াজে আবাদ প্রসার প্রতিবস্নকে ৫ হেঃ।

Ø        মরিচ চাষ আধুনিক পদ্ধতিতে সম্প্রসারণ ঘটাতে হবে ।

Ø        জিরা, কালিজিরা, ধনিয়া, মেথি, মৌরি চাষ সম্প্রসারণ।

 

শাক সবজি

 

Ø        রবি মৌসুমে প্রতি বস্নকে ২হেঃ করে আধুনিক জাতের আলু চাষাবাদ করা।

Ø        ফুলকপি,বাঁধাকপি চাষাবাদ বাড়াতে হবে।

Ø        টমেটো,বেগুন,মুলা,ঢেড়শ,ঝিংগা,চিচিংগা,শশা,পোটল,করলা চাষাবাদ প্রসার।

Ø        পুইশাক,পালংশাক,লালশাক,ডাটাশাক,লেটুস আবাদ বৃদ্ধিকারন।

 

 

বিষেশ কর্মসূচী

 

Ø        সজিনা, আমলকি,হরতকি,বহেরা অর্জুন,নিম,চউজ্জাল,পান।